রাজকন্যাদের বিবাহঃ একাল-সেকাল

রাজকন্যাদের বিবাহ

একটা সময় ছিল।

তখন দেশে রাজকন্যা থাকতো একটা দুটো করে। তাদের যখন বিয়ে হতো তখন সারা রাজ্যে হৈ চৈ পড়ে যেত। মাসব্যাপী উৎসব লেগে যেত, বিশাল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে মহাসমারোহে বিয়ের আয়োজন করা হত। রাজ্যের সকল প্রজা উৎসুক হয়ে থাকতো সেই দিনটির জন্য যেদিন রাজকন্যার বিয়ে হবে, রাজপুত্র আসবে ভিনদেশী কোন এক রাজ্য থেকে, ধবধবে সাদা ঘোড়ায় চড়ে। মহা ধুমধামের মধ্যে সেই বিয়ে হতো, সাতদিন আর সাতরাত ধরে চলতো উৎসব, আর তাতে যোগ দিতে পুরো রাজ্যের সকল প্রজা। বিয়ে হলে গেলে রাজকন্যা আর রাজপুত্র মিলে সুখে শান্তিতে বসবাস করতে থাকতো।

সেই দিন আর নাই, দিন পাল্টাইছে, অ্যানালগের পর ডিজিটাল যুগ আসছে।

এখন দেশে রাজকন্যা ভুরি ভুরি - এ বাড়ি ও বাড়ি সব বাড়ি ভর্তি রাজকন্যা আর রাজকন্যা। তাদের যখন বিয়ে হয় তখন সারা বিশ্বে হৈ চৈ পড়ে যায়। বিয়ে তো বহু পরের ঘটনা, রিলেশনশীপ স্ট্যাটাস সিঙ্গল থেকে ইন আ রিলেশনশীপে যাওয়া মাত্র বাংলাদেশ থেকে শুরু করে ভারত, পাকিস্তান, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, জাপান, সৌদিআরব, ডুবাই, তারপর গার্মানী থেকে শুরু করে আম্রিকা, ঘানা পর্যন্ত দেয়ালে দেয়ালে খবর পৌছে যায়। সবাই অপেক্ষা শুরু করে - কবে রিলেশনশীপ স্ট্যাটাস ম্যারিড হবে। বছর কয়েক ধরে চলে সেই অপেক্ষা। তারপর একদিন খবর আসে আনুষ্ঠানিক এনগেজমেন্টের, ততদিনে সারাবিশ্বের লোক অবশ্য মনে রাখতে পারে না, স্ট্যাটাচ পরিবর্তনের পর আজ পর্যন্ত একই লোক সেই পদে বহাল ছিল কিনা। তারপর একদিন হয় বিয়ে। সারা বিশ্বের লোক সেই বিয়ের ছবি দেখে, দাওয়াত পায় তার চেয়ে অনেক কম লোক, খেতে পায় আরও কম, কিন্তু সেই বিয়ের উৎসব সারা বিশ্বের মানুষের দেয়ালে দেয়ালে চলতে থাকে বছরের পর বছর (বাচ্চা জন্মানোর আগ পর্যন্ত)। রিলেশনশীপ স্ট্যাটাস ম্যারিড হয়ে গেলে সুখী জীবনের ছবিতে ভরে যায় মানুষের দেয়াল আর রাজকন্যা তার রাজপুত্রকে নিয়ে সুখ-শান্তির 'ভাব' নিয়ে বসবাস করতে থাকে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ