রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১১

The Fall: একতাল কাদা

রাজনৈতিক সম্পাদিত-প্রকাশিত: http://goo.gl/3yAgw

গভর্নর ওডিয়াস, যিনি নানা কারণে কুখ্যাত।  যেমন তিনি পাঁচজন তরুনের জীবনে দুর্ঘটনার কারণ। এই দুর্ভাগা পাঁচ কারা?

ওটা বেংগা, জন্ম থেকেই গভর্নর ওডিয়াসের দাস। আখ ক্ষেতে প্রাণপন পরিশ্রম করে ভাইয়ের সাথে মিলে। কিন্তু অত্যাধিক পরিশ্রমে ভাই মারা গেলে ওটা বেংগা ক্ষিপ্ত হয়ে সবাইকে মুক্ত করে দেয় এবং প্রতিজ্ঞা করে –  গর্ভনর ওডিয়াসকে হত্যা করবে।

ইন্ডিয়ান এক যোদ্ধা –  একজন সিং, দুশ্চিন্তাগ্রস্থ হলে তার ভ্রু ঘামে, বিয়ে করেছিল সবচে’ সুন্দরী এক মেয়েকে। কিন্তু গভর্নর ওডিয়াস কুষ্ঠ রোগীর বেশে দেখতে এলো তার স্ত্রীকে।  যোদ্ধা সিং তার ঘরের পাহারায় থাকলো, জানলো না তার স্ত্রীকে চুরি করে গভর্নর ওডিয়াস নিয়ে গেছে আগেই।  মুক্তির একটাই রাস্তা ছিল এক’র স্ত্রীর সামনে – অনেক উচুঁ দেয়াল থেকে লাফিয়ে মরলো সে।  রক্তপণ করলো যোদ্ধা – ওডিয়াসকে মারবে সে।

শনিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১১

বেড়িয়ে পড়ুন টিনটিনের সাথে

এই লেখাটা কিছুটা সম্পাদিত হয়ে দৈনিক সমকালের বিনোদন সাপ্তাহিক নন্দনে প্রকাশিত হয়েছিল

টিনটিনকে চিনেন তো? সেই যে গোলগাল মুখের লালচুলো অনুসন্ধিৎসু তরুন যে নানা রকম রোমাঞ্চকর দু:সাহসিক সব অ্যাডভেঞ্চারে ছুটে বেড়ায় আমেরিকা-কঙ্গো-তিব্বত, এমনকি সুদূর চন্দ্র পর্যন্ত; অপরাধীদের পেছনে ধাওয়া করে বেড়ায় পাহাড় পর্বত থেকে শুরু করে গভীর সাগরের তলদেশে নির্দ্বিধায় আর তীক্ষ্ণ বুদ্ধির জোরে সকল সমস্যার সমাধান করে এক নিমিষেই - সেই টিনটিনের কথাই বলছি। যুগ যুগ ধরে গোটা পৃথিবীর নানা দেশের অগুনতি পাঠকের অসীম ভালোবাসায় সিক্ত টিনটিন আবার হাজির হচ্ছে তার ভক্তদের সামনে - নতুন রূপে, আরও জীবন্ত হয়ে, রূপালী পর্দায়, আর তাকে এ রূপে নিয়ে আসছেন জুরাসিক পার্ক খ্যাত স্টিভেন স্পিলবার্গ, সাথে আছে কিংকং খ্যাত পরিচালক পিটার জ্যাকসন।

বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১১

বারান : বর্ষার রঙে আঁকা ভালোবাসার ছবি



হলিউড-বলিউডের "গরম" মুভিগুলোর মাঝে ইরানী মুভি যেন এক পশলা বৃষ্টির মতো। প্রায় একই সময়ে ইরান জন্ম দিয়েছে কলজয়ী সব পরিচালকদের। জাফর পানাহি, মাখমালবাফ পরিবার। এবং অতি অবশ্যই আব্বাস কিয়েরোস্তামি - যাকে শুধু ইরানী চলচিত্র নয়, সমগ্র বিশ্ব চলচিত্রের অন্যতম সেরা পরিচালক বলে বিবেচনা করা হয়। কিন্তু আমার ব্যক্তিগত পছন্দের শীর্ষে রয়েছেন অন্য এক পরিচালক- মাজিদ মাজিদি।

তার পরিচালিত আরেকটি অসাধারণ মুভি হলো Baran (2001)। প্রথমেই একটি কথা স্বীকার করে নেই, মুভিটা শুরু হবার আগেই আমি এটাকে পছন্দ করেছিলাম। ইরানী শব্দ "বারান (باران )" এর অর্থ বৃষ্টি। যে মুভির নামের সাথেই বৃষ্টি শব্দটি জুড়ে আছে, তাকে ভালো না বেসে উপায় কি!

সালমান শাহের পরে চলচ্চিত্র শিল্প

[caption id="" align="alignleft" width="245"] সালমান শাহ (১৯ সেপ্টেম্বর ১৯৭০ - ৬ সেপ্টেম্বর, ১৯৯৬)[/caption]

রাজনৈতিক সম্পাদিত-প্রকাশিত: http://goo.gl/uneSd

আজ সালমান শাহের ১৫তম মৃত্যুবার্ষিকী। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে ‘এলাম-দেখলাম-জয় করলাম’- এর সবচে ভালো উদাহরন বোধহয় সালমান শাহ। ২৮ টি চলচ্চিত্রে সাড়ে তিন বছরের অভিনয় জীবন তার।

১৯৯৩ সালের ২৫শে মার্চ তারিখে ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ দিয়ে শুরু করে ১৯৯৭ সালের ৫ সেপ্টেম্বরের ‘বুকের ভেতর আগুন’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে শেষ করা ক্যারিয়ারে মোট সিনেমার সংখ্যা ২৮টি। সময় সাড়ে চার বছর। চলচ্চিত্র মুক্তি পাবার সময় হিসাব করলে চার বছর হলেও ক্যারিয়ার জীবন সাড়ে তিন বছর, কারণ ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর তারিখে সালমান শাহ দেহ রাখেন। ১৯৯৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত প্রায় সব চলচ্চিত্রের কাজই অসমাপ্ত ছিল তার, নতুন নায়ক দিয়ে, গল্পে সামান্য পরিবর্তন করে পরিচালকরা তার অসমাপ্ত কাজ সমাপ্ত করেন এবং মুক্তি দেন।