শনিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০১০

Salt: এমন কোন মুভি নয় যা মনে রাখতে হবে

অ্যাঞ্জেলিনা জোলিকে আমার ভালো লাগে, তার বেশ কিছু ছবি সবসময় মনে রাখার মতো। কিন্তু ইদানিং কালের অ্যাকশনধর্মী সিনেমাগুলো চরম বিরক্তিকর লাগছে। বিশেষ করে 'ওয়ান্টেড' সিনেমা দেখার পরে একটা ফোরামে কমেন্ট করেছিলাম - "আমারই দোষ, গাঁজা না খাইয়া সিনেমা দেখতে বসছিলাম। যেখানে গাজা খাইয়া চিত্রনাট্যকার গল্প লেখে, পরিচালক পরিচালনা করে আর জোলি অভিনয় করে সেইটা গাজা না খাইয়া দেখা নিতান্তই অপরাধ বটে"। অবশ্য এই কমেন্টের পরে উক্ত ফোরামে আমাকে কাপড় কাচার মতো করে ধোয়া হয়, অবশ্য তাতে ময়লা দূর হয় নাই।

রবিবার, ১০ অক্টোবর, ২০১০

Trilogy of Death: Babel

স্থান মরক্কোর এক দুর্গম অঞ্চল, মরুভূমি। চরিত্র দুটো কিশোর ছেলে, ইউসুফ ও আহমেদ। ছাগল পাল চড়ায়। শেয়ালের আক্রমন প্রতিরোধ করতে তার বাবা তাদের একটি বন্দুক কিনে দেন। বন্দুক বিক্রেতা বলেছিল, প্রায় তিন কিলোমিটার পর্যন্ত দুরত্বে গুলি করা সম্ভব এই বন্দুক দিয়ে। সত্যি বলেছিল তো? একটা পরীক্ষা করলেই প্রমাণ হয়ে যাবে। দূরে রাস্তায় যে বাসটি দেখা যাচ্ছে সেখানে গুলি করে লাগানো যায় কিনা ট্রাই করা যেতে পারে। বয়সে ছোট হলেও অপেক্ষাকৃত বুদ্ধিমান আহমেদ বন্দুক কাধে ঠেকায়, তারপর নিশানা করে গুলিটা ছোড়ে। ধুস! লাগে নাই, তারমানে বিক্রেতা ঠকিয়েছে। সিদ্ধান্তে উপনীত হতে দেরী হয় না কিশোরদ্বয়ের। কিন্তু একি, বাসটা গতি কমিয়ে দাড়িয়ে যাচ্ছে কেন?

শনিবার, ৯ অক্টোবর, ২০১০

Trilogy of Death: 21 Gramos

How many lives do we live? How many times do we die? They say we all lose 21 grams at the exact moment of our death. And how much fits into 21 grams? How much is lost? How much is gained?সত্যিই তো, একটা মানুষ যখন মারা যায় তখন তার শরীরের ওজন কতটুকু কমে? মারা যাওয়া মানে তো শরীর থেকে আত্মাটির বের হয়ে যাওয়া। সেক্ষেত্রে আত্মাটির ওজন কত? আত্মার ওজন ২১ গ্রাম। অবশ্য আত্মার ওজন ২১গ্রাম হবার পূর্ব শর্ত হলো আত্মা একটি বস্তু, অন্যথায় এর ওজন থাকার কথা না। ২১ গ্রামোস সিনেমাটি ডেথ ট্রিলজির দ্বিতীয় পর্ব।

শুক্রবার, ৮ অক্টোবর, ২০১০

Trilogy of Death: Amores Perros

মুভি ট্রিলজির কথাটির সাথে আমরা প্রায় সবাই পরিচিত। বিশেষ করে গডফাদার ট্রিলজি, ব্যাক টু দ্য ফিউচার ট্রিলজি, লর্ড অব দ্য রিঙস ট্রিলজি, জ্যাসন বোর্ন ট্রিলজি, কিংবা আমাদের উপমহাদেশের বিখ্যাত সত্যাজিত রায়ের অপু ট্রিলজি ইত্যাদি সিনেমাগুলো মুভি ট্রিলজি সম্পর্কে মুভি দর্শকদের মধ্যে পর্যাপ্ত ধারনা প্রদান করতে সক্ষম হয়েছে। সাধারণত একই বিষয়কে কেন্দ্র করে যখন তিনটি সিনেমা নির্মিত হলে সেগুলো ট্রিলজি হিসেবে পরিচিত হয়। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই এই ট্রিলজিগুলো একই পরিচালকের সৃষ্টি, প্রায় একই অভিনেতারা অভিনয় করেন তবে ব্যতিক্রমও লক্ষ্যনীয়। যেমন গডফাদার ট্রিলজি, কিংবা জ্যাসন বোর্ন ট্রিলজির পরিচালক পাল্টে গেছেন কোন এক পর্বে।

ঋতুপর্ণ ঘোষের ‘আবহমান’ কি সত্যজিৎ রায়কে নিয়ে ?

কোলকাতার সিনেমা 'আবহমান' এ বছর মুক্তি পেয়ে বাংলা ভাষায় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছে। পরিচালক ঋতুপর্ণ ঘোষ। গুনী এ পরিচালকের কাছ থেকে ভালো সিনেমা পাওয়া যাবে, এ বিশ্বাসটি তিনিই তৈরী করেছেন, তার পূর্বনির্মিত সিনেমাগুলোর মাধ্যমে। 'আবহমান' ভালো হবে সেটা জানা কথা কিন্তু কতটা? সেটা জানার জন্যই সিনেমাটা দেখতে হবে।