বাংলাদেশের সবগুলো জেলা ঘোরার প্ল্যান এবং 'দারাশিকো'র বঙ্গভ্রমণ' সিরিজ শুরু করার পর এক ছোটভাই নিজ আগ্রহে দুটো বই ধরিয়ে দিয়ে গেল দিন কয়েক আগে। প্রথমটা হুমায়ূন আহমেদ এর - 'রাবণের দেশে আমি এবং আমরা', অন্যটি, আবদুল্লাহ আবু সায়ীদের 'ওড়াউড়ির দিন'।

রাবণের দেশ হল শ্রীলঙ্কা। আর্কিটেক্ট শাওনের পরিকল্পনায় শ্রীলঙ্কা ভ্রমণের অন্যতম উদ্দেশ্য হল জেফরি বাওয়া নামে বিশ্বখ্যাত শ্রীলঙ্কান আর্কিটেক্টের কাজগুলো দেখা, পাশাপাশি শ্রীলঙ্কার আর্কিটেকচারাল সাইটগুলো ভ্রমণ। শাওনের ক্যামেরায় তোলা পারিবারিক ছবির মধ্য দিয়ে শ্রীলঙ্কার সৌন্দর্য্যের একটা অংশ ফুটে উঠেছে ছবিতে। লোভনীয় জায়গা - আগ্রহ বাড়ল। বাংলাদেশ ঘোরা শেষ করতে পারলে বাহিরের দেশগুলোর মধ্যে শ্রীলঙ্কা তালিকার প্রথম দিকে থাকবে। গরীব মানুষ, আগে বাংলাদেশ ঘোরা শেষ হোক।

লেখক বেশ অল্প কথায় গুরুত্বপূর্ণ কিছু ইতিহাস তুলে ধরেছেন বইয়ে, বাকীটা তার নিজস্ব স্টাইলের হাসি-আনন্দ। ভালো লেগেছে যে বিষয়টা সেটা হল তার বই পড়ার অভ্যাস- ভ্রমণের মাঝেও বই কিনছেন, বই পড়ে শেষ করছেন। ভাগ্যিস লেখকের ফেসবুক ছিল না, এই বইয়ের কারণে আমাদের সেই বই পড়ার অভ্যাস নাই হয়ে যাচ্ছে।

যাই, 'ওড়াউড়ির দিন' শুরু করি।